বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন এ তালিকাভুক্ত আইডি নং – ৪২৯ ............................ দেশ ও জাতীর কল্যাণে সংবাদ ও সাংবাদিকতা!! আপনি কি সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতীর কল্যাণে কাজ করতে চান তা হলে যোগাযোগ করুন ০১৭২৬৩০৪০৯২
প্রচ্ছদ

সত্যিই অহন আর চিল্লায় মার্কেট পাওন যায় না-আসাদ মিলন

মোঃ নাসিম উদ্দিন, সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধিঃ গত কয়েকদিনে জামালপুর জেলা প্রশাসকের একটি ভিডিও নিয়ে সারাদেশে নানা আলোচনা এবং সমালোচনার পর জেলা প্রশাসক মহোদয়কে ওএসডি করে আজ দুপুর ১২ টা সময় একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়। একই সঙ্গে আরেকটি প্রজ্ঞাপনে জামালপুরে নতুন ডিসি নিয়োগ দেয়া হয়। এই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনা এবং সমালোচনা চলাকালে  Asad milon নামক এক ফেইসবুক আইডিতে আজ বিকালে সুন্দর একটি বিশ্লেষণধর্মী স্ট্যাটাস দেখতে পাই, যা হুবুহু আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম “সত্যি,সত্যিই এহন আর চিল্লায়া মার্কেট পাওন যায় না, অহন মার্কেট পাইতে অইলে চাটার মত চাটতে হয়,নয়লে ডিসিসাপের মত রাম ধরা খাইতে হয়। এক কম্মেই কেল্লাফতে!
জামালপুরের ডিসিসাপের অনৈতিক অবস্থার ভিডিও ধারণ অতঃপর প্রকাশ মোটেও সাধারণ কোন বিষয় নয়,এর আগে পিছে,ভিতরে অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ বার্তা আছে। আমার কাছে অন্তত সেটাই মনে হচ্ছে।
এইটা মূলত আমাদের জাতীয় নিরাপত্তাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। ভিতর, বাহিরে আমরা কতটা অসহায়,অনিরাপদ আর অন্যের খায়েশের কাছে  আমাদের সমাজ,রাষ্ট্র কতটা ভয়ানকভাবে জিম্মি সেটার পূর্বাভাসমাত্র।
ভিডিও লিংকের তালাশ ও দর্শনপূর্বক আমরা যতই পুলকিত হই না কেন, একটা বিষয় কিন্তু চিন্তার আছে – ডিসিসাপ/ ভিসিসাপরা নিশ্চয় নিজেদের ওমন রমরমা অবস্থা স্বপ্রোণদিত হয়ে ভিডিও ধারণপূর্বক প্রকাশ করবেন না।
 হ্যাঁ এইখানেই মূল রহস্য এবং লেখার মূল পয়েন্ট।  তায়লে কর্তাদের অন্দরমহলে এমন দুঃসাহসিক কাজটি নিশ্চয় কোনো শক্তিশালী চক্রের এজেন্ট দ্বারা সম্পন্ন হয়েছে যারা দেশের বাইরেরও হতে পারে ভিতরেরও হতে পারে।
এখন আমি যদি বলি চক্রটি ডিসির মাধ্যমে আমাদের একটি মেসেজ দিচ্ছে যাই কর বাপ, আমার/ আমাদের স্বার্থের ফয়সালা না হলে, তোমরা সবাই কিন্তু জামালপুরের ডিসিসাপ।
নিজ দেশে নিজ কার্যালয়েরই যখন এমন বেহালদশা সেখানে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন হোটেল-মোটেল,রিসোর্টে আমাদের ভিআইপিদের  সময়ে -অসময়ে, প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনের গমনাগমন কতটা ঝুকিযুক্ত! কতটা অনিরাপদ সে খবর প্রকাশিত হলে কিএক্টা পরিস্থিতির সৃষ্টি হবে একবার ভাবুন তো! অবশ্য অভ্যাস না থাকলে ভিন্ন কথা।
ধরি, দেশের গুরুত্বপূর্ণ অধিকাংশ ভিআইপিরা এমন লিকেজের দ্বারপ্রান্তে। এমন একটা পরিস্থতিতে আমাদের উপরওয়ালারা কি নিজেদের মান/ জান বাঁচাবেন নাকি গোপনে দেশের স্বার্থকে জলাঞ্জলি দিবেন”?





Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*