বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন এ তালিকাভুক্ত আইডি নং – ৪২৯ ............................ দেশ ও জাতীর কল্যাণে সংবাদ ও সাংবাদিকতা!! আপনি কি সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতীর কল্যাণে কাজ করতে চান তা হলে যোগাযোগ করুন ০১৭২৬৩০৪০৯২
প্রচ্ছদ

প্রধান শিক্ষকের নিয়োগ বানিয্যে ও প্রতিবাদে প্রতিষ্ঠানে তালা দির্ঘ ৪ দিন পর শিক্ষা কার্যক্রম শুরু

ইসমাইল হোসেন রাশেদ, সরিষাবাড়ী প্রতিনিধিঃ জামালপুরের সরিষাবাড়ি সিমান্ত বর্তী রগুনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আনছার আলীর বিরোদ্ধে নিয়োগ বানিয্যেও অভিযোগ উঠেছে। প্রতিবাদে তালা ঝুলিয়ে প্রতিষ্ঠান বন্ধ কওে দিয়েছে ভুমি দাতা পক্ষ্য। শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত দির্ঘ চার দিন।

স্থানীয় সূত্রে ও শিক্ষক সদস্য মোঃ সুরুজ্জামান, আঃ লথিপ দাতা সদস্য নুরুল ইসলাম, ভুমি দাতা সন্তু, আলাউদ্দিন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জহুরুল হক মিন্টুসহ বিভিন্ন ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাক সূত্রে জানা যায় রগুনাথপুর উচ্চ বিদ্যালয় নিয়োগ প্রকৃয়া পরিচালনা কমিটি শিক্ষক সদস্য সহ বেশি সংখ্যক সদস্য প্রধান শিক্ষকের বিভিন্ন দুর্নিতীর কারনে পদত্যাগ করেন।

এবং পরিচালনা কমিটি পরবর্তীতে বাকি সদস্যদের সাথে নিয়ে প্রধান শিক্ষক উক্ত প্রতিষ্ঠানের অফিস সহকারি,লাইব্রেরীয়ান ও দপ্তরি নিয়োগ প্রকৃয়া বিধি বহির্ভত ভাবে সম্পন্য করার চেষ্টা করলে পদত্যাগ গ্রহন কারিরা কমিটির বিরোদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেণ।

মামলার সুষ্ঠ সমাধান না আসার পূর্বেই প্রধান শিক্ষক নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে গত ২১ ডিসেম্বর ২০১৮ নাম মাত্র নিয়োগ বোর্ড গঠন করে মোটা অংকের উৎকোচের বিনিময়ে নিয়োগ প্রকৃয়া সম্পন্য করেন।

বিষয়টি প্রকাশ হলে এলাকার জনগণ, স্কুলের ছাত্র- ছাত্রী, অভিভাবক ও অবস্থিত প্রতিষ্ঠানের খতিয়ান নং ২০৯৭ দাগ নং ৫১ পরিমান ১০৬ শতাংশ মৌজা পোগলদিঘা সরিষাবাড়ি জামালপুর তফছিল বর্নিত ভুমি মালিক গণ অবৈধ নিয়োগ বাতিল ও প্রধান শিক্ষকের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেন এবং প্রতিষ্ঠানে তালা ঝুলিয়ে প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম বন্ধ কওে দেন।

পরবর্তীতে ৩০ জানুয়ারী দুপুরে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জহুরুল হক মিন্টু সকলের সাথে কথা বলে সকল দাবির সুষ্ঠ সমাধানের আশ্বাস দিয়ে নিজ হাতে প্রতিষ্ঠানের তালা খুলে দেন।

এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক আনছার আলী সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন বিধি মোতাবেক নিয়োগ প্রকৃয়া সম্পন্য হয়েছে কোন উৎকোচ নেওয়া হয়নি কেন ভুমি মালিকরা প্রতিষ্ঠানে তালা লাগালেন তা জানিনা।

পরে রেজুলেশন খাতাসহ নিয়োগ প্রকৃয়ার বিভিন্ন ডকোমেন্ট দেখতে চাইলে সকল ডকোমেন্ট তার বাসায় রয়েছে বলে জানান।
ইসমাইল হোসেন রাশেদ






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*