বাংলাদেশ অনলাইন নিউজ পোর্টাল এসোসিয়েশন এ তালিকাভুক্ত আইডি নং – ৪২৯ ............................ দেশ ও জাতীর কল্যাণে সংবাদ ও সাংবাদিকতা!! আপনি কি সাংবাদিক হয়ে দেশ ও জাতীর কল্যাণে কাজ করতে চান তা হলে যোগাযোগ করুন ০১৭২৬৩০৪০৯২
প্রচ্ছদ

শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে ভালবাসা দিবসে স্বামীর হাতে প্রাণ গেল নববধূর

সুলতান হোসাইনঃশেরপুরের নালিতাবাড়ীতে যৌতুকের দাবি মেটাতে না পারায় ভালবাসা দিবসে স্বামীর হাতে প্রাণ গেল তাসলিমা (১৯) নামে এক নববধূর। ঘটনাটি ঘটে ১৪ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার ভালবাসা দিবসের ভোর রাতে পৌর শহরের চরপাড়া মহল্লায়।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মাত্র তিনমাস আগে পরিবারের সম্মতিতে খালভাংগা গ্রামের মোফাজ্জল হোসেন এর মেয়ে তাসলিমার বিয়ে হয় পৌরশহরের নামা ছিটপাড়া গ্রামের সফর উদ্দিনের ছেলে আনিসুরের সাথে। আনিস তার স্ত্রীকে নিয়ে চরপাড়া গ্রামে তার নানা হাবিল উদ্দিনের বাড়িতে থাকতেন। আনিসুর রাজমিস্ত্রির সহকারী হিসেবে কাজ করতেন। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য আনিসুর তাসলিমাকে মারধর করতেন। ১৫ দিন আগে আনিস অটোরিকশা কিনতে তাসলিমাকে তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা আনতে চাপ দেয়। তাসলিমা বাবা ‘স’ মিলের শ্রমিকের কাজ করেন। এতো টাকা দিতে পারবেন না বলে তসলিমা আনিসকে জানান। এতে আনিস ক্ষিপ্ত হয়ে তাসলিমাকে মারধর করে তসলিমাকে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। দুই দিন পরে খালি হাতে তাসলিমা স্বামীর বাড়িতে চলে আসেন। আনিস প্রতিরাতে নেশা করে বাড়িতে ফিরতেন। গত বুধবার রাতে তাসলিমা ও আনিস রাতে তাদের ঘরে ঘুমাতে যান। হঠাৎ রাত তিনটার দিকে আনিস বাড়ির বাহির থেকে তার মামির কাছে ফোন করে তসলিমাকে দিতে বলেন। মামি ফোন নিয়ে দ্রুত তাসলিমার ঘরে যান। এসময় তাসলিমার ঘরের দরজা খোলা ছিল ঘরে গিয়ে তাসলিমাকে মাটিতে পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশিকে খবর দেন। রাত সাড়ে তিনটার দিকে আত্বিয় স্বজন ঘরে গিয়ে তসলিমার লাশ মাটিতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরিবারের অভিযোগ তাসলিমাকে শাসরুদ্ধ হত্যা করা হয়েছে। ঘাতক স্বামী পালিয়ে যাওয়ার সময় তাসলিমার গলায় থাকা চেইন , কানের দুল ও নাকের ফুলটিও নিয়ে গেছে। পুলিশ খবর পেয়ে, সকালে ঘটনাস্থল থেকে তাসলিমার মরাদেহ উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে তসলিমার বাবা মোফাজ্জল হোসেন বাদি হয়ে নালিতাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে তসলিমার স্বামী আনিসুর রহমান ও মামা পলাতক রয়েছেন।
এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (প্রশাসন) আবুল খায়ের বলেন,খবর পেয়ে সকালে চরপাড়া মহল্লা থেকে তাছলিমার মরদেহ তার স্বামীর ঘরের মেঝে থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ সময় তার গলায় জখমের চিহ্ন পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে। লাশ শেরপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে। অপরাধিদের ধরতে পুলিশি অভিযান চলছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*